default-image

মুন্সিগঞ্জের মিরকাদিম পৌরসভা নির্বাচনে পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় স্থানীয় এক সাংবাদিকের ক্যামেরা ও মুঠোফোন ছিনিয়ে নিয়েছে ছাত্রলীগ। রোববার দুপুর ১২টার দিকে পৌরসভার এনায়েতনগর উচ্চবিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

ওই সংবাদকর্মীর নাম সিহাব আহমেদ। তিনি স্থানীয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘আমার বিক্রমপুর’-এর স্টাফ রিপোর্টার। সিহাব আহমেদ অভিযোগ করেন, দুপুরে পৌরসভা নির্বাচনের সংবাদ সংগ্রহের কাজে এনায়েতনগর কেন্দ্রে যান তিনি। সেখানে বহিরাগত ব্যক্তিদের উপস্থিতির ভিডিও চিত্র ধারণ করছিলেন। এ সময় কাউন্সিলর প্রার্থী মোখলেসুর রহমানের পক্ষে আলী আহমেদ রাসেল নামের একজনের নেতৃত্বে জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক চিশতিয়া ব্যাপারীসহ ১০-১২ জন মিলে তাঁর ওপর হামলা করে ক্যামেরা, মুঠোফোন ও পরিচয়পত্র ছিনিয়ে নেন। এ সময় উপস্থিত পুলিশের কাছে সহযোগিতা চাইলেও তারা নীরব ভূমিকা পালন করে।

বিজ্ঞাপন

৮ নম্বর ওয়ার্ডের পাঞ্জাবি প্রতীকের কাউন্সিলর প্রার্থী মোকলেসুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, তিনি কোনো বহিরাগত আনেননি। তবে রাসেল ও চিশতিয়া তাঁর লোক। তাঁরা কোনো সাংবাদিকের ওপর হামলা কিংবা ক্যামেরা ও মুঠোফোন ছিনিয়ে নিয়েছেন কি না, তাঁর জানা নেই। যদি এমন হয়, তবে তিনি ব্যবস্থা নেবেন।

সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে এই প্রতিবেদন লেখার সময় ছিনিয়ে নেওয়া ক্যামেরা, মুঠোফোন ও পরিচয়পত্র ফেরত পাননি বলে জানিয়েছেন সিহাব আহমেদ।
মিরকাদিম সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, এ বিষয়ে মৌখিক অভিযোগ পাওয়া গেছে। দোষীদের বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন