default-image

পঞ্চম ধাপে ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া চট্টগ্রামের মিরসরাই পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী নুর মোহাম্মদের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। মেয়র পদে মাত্র দুজন প্রার্থী থাকায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী গিয়াস উদ্দিন বিনা ভোটে নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন।

মিরসরাই উপজেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্র জানায়, আজ বৃহস্পতিবার মিরসরাই পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের দিন ধার্য ছিল। এর আগে ২ ফেব্রুয়ারি বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী নুর মোহাম্মদের প্রস্তাবকারী মো. জসীম উদ্দিন ও শনাক্তকারী খায়েরউল্লা তাঁদের স্বাক্ষর জালিয়াতি করে বিএনপি প্রার্থীর মনোনয়নপত্রে প্রস্তাবকারী ও শনাক্তকারী করা হয়েছে বলে রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন।

মেয়র পদে মাত্র দুজন প্রার্থী থাকায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী গিয়াস উদ্দিন বিনা ভোটে নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন।

এ বিষয়ে মিরসরাই পৌরসভা নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মিনহাজুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, বিএনপি প্রার্থী নুর মোহাম্মদের মনোনয়নপত্রে প্রস্তাবকারী ও সমর্থনকারী দুই ব্যক্তি মনোনয়নপত্রে তাঁদের স্বাক্ষর জাল করা হয়েছে বলে লিখিত অভিযোগ দেন। যাচাই–বাছাই করে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন ২০০৯-এর ১৯ ধারায় মেয়র প্রার্থী নুর মোহাম্মদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

আমার মনোনয়নপত্রে প্রস্তাবকারী ও সমর্থনকারী দুজনই আমাদের দলের বিশ্বস্ত লোক। তাঁরা জেনে–বুঝেই মনোনয়নপত্রে স্বাক্ষর করেছেন। আওয়ামী লীগ মেয়র প্রার্থীর লোকজনের ভয়ভীতি ও চাপের মুখে পড়ে তাঁরা এই অভিযোগপত্র দিয়েছেন।
নুর মোহাম্মদ, বিএনপির মেয়র প্রার্থী

বিএনপির মেয়র প্রার্থী নুর মোহাম্মদ প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমার মনোনয়নপত্রে প্রস্তাবকারী ও সমর্থনকারী দুজনই আমাদের দলের বিশ্বস্ত লোক। তাঁরা জেনে–বুঝেই মনোনয়নপত্রে স্বাক্ষর করেছেন। আওয়ামী লীগ মেয়র প্রার্থীর লোকজনের ভয়ভীতি ও চাপের মুখে পড়ে তাঁরা এই অভিযোগপত্র দিয়েছেন।’

বিনা ভোটে মেয়র হতে যাওয়া আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী মো. গিয়াস উদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, এসব অভিযোগ ভিত্তিহীন। মূলত বিএনপির নেতা-কর্মীদের পাওয়া না পাওয়ার হিসাবের জেরে অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়ে এসব ঘটেছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন