বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন সেখান থেকে ডিঙি নৌকায় লৌহজং নদ পার হয়ে রণদার বাড়ির দুর্গামণ্ডপ পরিদর্শন করেন। তিনি সেখানে পূজা উপভোগ করেন। মঙ্গল প্রদীপের আশীর্বাদ নেন। এ সময় ব্রিটিশ হাইকমিশনের ডেপুটি হাইকমিশনার জাবেদ পাটেল, কুমুদিনী কল্যাণ সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাজীব প্রসাদ সাহা, পরিচালক (শিক্ষা) ভাষাসৈনিক প্রতিভা মুৎসুদ্দি, পরিচালক শ্রীমতি সাহা, পরিচালক শম্পা সাহা, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. জুবায়ের হোসেন ও টাঙ্গাইলের সহকারী পুলিশ সুপার (মির্জাপুর সার্কেল) আবু মুসা উপস্থিত ছিলেন।

পূজামণ্ডপ পরিদর্শনের পর রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন বলেন, দুর্গাপূজায় বর্ণিল রঙের নানা আয়োজন হয়েছে। এ আয়োজনে আসতে পেরে তিনি ধন্য। করোনার কারণে এ দেশে উৎসবটিতে গত বছর ভাটা পড়েছিল। তবে এ বছর তা পরিলক্ষিত হচ্ছে না। সর্বত্র উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। তিনি দানবীর রণদা প্রসাদ সাহা প্রতিষ্ঠিত কুমুদিনী হাসপাতাল ও অন্যান্য স্থাপনার কার্যক্রমের প্রশংসা করে শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও সমাজসেবায় গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য রণদাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন।

হাইকমিশনার মধ্যাহ্নভোজের পর ঢাকার উদ্দেশে মির্জাপুর ত্যাগ করেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন