বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

উখিয়ার রেঞ্জ কর্মকর্তা গাজী শফিউল আলম জানান, গত ২ দিনে বালুখালী, উখিয়া বাজার ও মাসকারিয়া বিল এলাকায় বন বিভাগের অভিযানে বক ও কচ্ছপগুলো উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এ সময় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। এর মধ্যে ১০৩ সাদা বক সুস্থ ছিল। বাকি ২৪টি বক অসুস্থ থাকায় সেগুলোকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসাসেবা দিয়ে গতকাল বিকেলে ইউএনওর উপস্থিতিতে আকাশে অবমুক্ত করা হয়েছে।

গাজী শফিউল আলম বলেন, উদ্ধার হওয়া কচ্ছপ ২টি খুবই দুর্লভ। এক অসাধু ব্যবসায়ী কচ্ছপ জোড়া বাজারে বিক্রি করতে এসেছিলেন। তবে বন বিভাগের কর্মীদের দেখে ওই ব্যবসায়ী কচ্ছপ ফেলে পালিয়ে যান। বক ও কচ্ছপ শিকার ও বিক্রির সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হবে।

গত ২ দিনে বালুখালী, উখিয়া বাজার ও মাসকারিয়া বিল এলাকায় বন বিভাগের অভিযানে ১২৭টি বক ও ২টি কচ্ছপ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এ সময় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।
গাজী শফিউল আলম, উখিয়ার রেঞ্জ কর্মকর্তা

ইউএনও নিজাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, শীত মৌসুমের আগেই অতিথি পাখিসহ বিভিন্ন ধরনের পাখি দেশের জলাশয়-বিলে আসবে। তারা যেন নির্বিঘ্নে বিচরণ করতে পারে, সেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এদিকে পাখি শিকার থেকে বিরত থাকার জন্য মানুষকে সচেতন করতে উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে মাইকিং করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন