default-image

মুন্সিগঞ্জের সদর উপজেলায় নিখোঁজের ছয় দিন পর এক ট্রলারচালকের বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।  শুক্রবার দুপুরে উপজেলার চরাঞ্চলের ঢালীকান্দি মোল্লাবাড়ী গ্রামের একটি পুকুরে মাটিচাপা অবস্থায় তাঁর লাশ পাওয়া যায় ।

নিহত ব্যক্তির নাম মো. ইনসান সিকদার (৩৩)। তিনি ঢালীকা‌ন্দি  মোল্লাবা‌ড়ি গ্রামের প্রয়াত র‌ফিজউদ্দীন সিকদারের ছেলে। ইনসান ট্রলারচালক ছিলেন। ১৩ ফেব্রুয়ারি রাত ৮ টার দিকে বাড়ি থেকে বের হয়ে তিনি আর ফিরে আসেননি।

শিবলু ভূঁইয়া নামে স্থানীয় এক ব্যক্তি বলেন, সকালে নোয়াদ্দা গুচ্ছগ্রামের পূর্ব পাশের মোল্লাপাড়া কবরস্থানের কাছাকাছি পুকুরপাড় দিয়ে মানুষ যাতায়াত করছিল। সকাল থেকে স্থানীয় লোকজন সেখান থেকে দুর্গন্ধ পাচ্ছিলেন। পুকুরের পাড়ের কাছে যেতেই তাঁরা মাটিচাপা অবস্থায় একটি বস্তা দেখতে পান। বস্তার ভেতরে মানুষের একটি হাত দেখা যাচ্ছিল। বিষয়টি দেখে স্থানীয় লোকজন পুলিশে খবর পাঠান। বেলা দেড়টার দিকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

‌নিহত ইনসানের শ্যালক মোহাম্মদ আল-আমিন হোসেন প্রথম আলোকে জানান, ‘১৩ তারিখ রাতে আমার বোন মিনারা বেগম ও তার স্বামী ইনসান খাবার শেষ করে। সে সময় এক ব্যক্তি ইনসানের মুঠোফোনে ফোন করে। ইনসান আমার বোনকে জানায়, ঘাটে তার ট্রলারটি বাঁধা আছে, সেটা সে চলে আসবে। এরপর রাত পরিয়ে গেলেও সে বাড়ি ফিরে আসেনি। ফোনও বন্ধ ছিল। পরদিন ইনসানের ফোন থেকে ফোন দিয়ে এক ব্যক্তি তিন লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। টাকা না পেলে ইনসানকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। বিষয়টি জানিয়ে মুন্সিগঞ্জ সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়। আজকে বোনজামাইয়ের লাশ পেলাম।’

ইনসানের লাশ উদ্ধারের বিষয়ে সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আবুল বাশার বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় হত্যা মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন