বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ঘোড়া প্রতীকের প্রচার ক্যাম্পের তত্ত্বাবধায়ক জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, নৌকার প্রার্থী হাফিজুজ্জামান খানের ছোট ভাই জুয়েল, সমর্থক সাইদুর, রমজানসহ বেশ কয়েকজন জোর খাটিয়ে তাঁদের নির্বাচনী ক্যাম্প দখল করে নেন। তিনি বাধা দিতে গেলে জুয়েল, সাইদুর তাঁকে মারধর করেন। তাঁরা গলা টিপে ধরেছেন। তাঁকে মারতে মারতে নৌকার স্লোগান দিতে বলেন তাঁরা।

এ বিষয়ে মনসুর আহমেদ প্রথম আলোকে বলেন, ‘নির্বাচনের প্রচার শুরু করতে পারিনি। এরই মধ্যে নৌকার লোকজন আমাদের সমর্থকদের ওপর হামলা করছেন। লোকজনদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভয় দেখাচ্ছেন। গতকাল রাতে আমাদের জায়গায় করা নির্বাচনী প্রচার ক্যাম্প দখল করে নিয়েছেন। শুরুতেই এত সমস্যা। সামনে কীভাবে কাজ করব, সেটা নিয়েই ভয়ে আছি।’

অভিযোগের বিষয়ে নৌকার প্রার্থী হাফিজুজ্জামান খান বলেন, ‘মনসুর আহমেদেরা অনেক প্রভাবশালী। তাঁদের ক্যাম্প আমরা দখল করব কীভাবে?’

আজ মঙ্গলবার দুপুরে গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রইস উদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, বিষয়টি জানতে পেরে তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশ পাঠানো হয়। এ ঘটনায় এখনো লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পঞ্চম ধাপে উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে ৫ জানুয়ারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। গত সোমবার প্রতীক পাওয়ার পর নির্বাচনী প্রচারে নেমেছেন প্রার্থীরা।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন