বিজ্ঞাপন

দুর্ঘটনায় নিহতেরা হলেন মো. শায়র (২০) ও অমি কাজী (২১)। তাঁরা দুজন সম্পর্কে খালাতো ভাই। শায়র নারায়ণগঞ্জের পঞ্চপট্টি এলাকার আসলাম উদ্দিনের ছেলে। অমি কাজী মুন্সিগঞ্জ সদরের দ্বিতীয় হুগলাকান্দী কাজীবাড়ি এলাকার আলমাস কাজীর ছেলে। শায়র উত্তরার একটি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিলেন। অমি সরকারি হরগঙ্গা কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিলেন।

মুন্সিগঞ্জ ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক বজলুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, শায়র ও অমি পঞ্চবটি থেকে মুন্সিগঞ্জে ফিরছিলেন। তাঁরা মোটরসাইকেলটি বেপরোয়া গতিতে চালিয়ে আসছিলেন। তাঁদের দুজনের কানে এয়ারফোন লাগানো ছিল। মুক্তারপুর সেতুর ওপর এলে মোটরসাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সেতুর রেলিংয়ে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই শায়র মারা যান। গুরুতর আহত অবস্থায় অমিকে উদ্ধার করে মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিলে সেখানে তিনি মারা যান।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন