default-image

জয়পুরহাটে রাতে কবরস্থানে গিয়ে মৃত ব্যক্তির মাথা কাটার প্রস্তুতি নেওয়ার অভিযোগে গ্রামবাসী দুই বৃদ্ধকে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন। গতকাল শনিবার রাতে কালাই উপজেলার ডিংরাপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। কালাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম মালিক প্রথম আলোকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আটক দুই বৃদ্ধ হলেন কালাই উপজেলার টুনটুন সরদারপাড়া গ্রামের নুরুল ইসলাম (৭০) ও একই উপজেলার পাঁচপাইকা গ্রামের জয়নাল মণ্ডল (৮০)। তাঁরা দুজন এলাকায় সাপুড়ে ও কবিরাজ হিসেবে পরিচিত।

কালাই থানার পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই গ্রামের এক ব্যক্তি তিন থেকে চার দিন আগে মারা যান। তাঁকে গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। গতকাল রাত সাড়ে সাতটার দিকে নুরুল ইসলাম ও জয়নাল মণ্ডল ধারালো অস্ত্র নিয়ে কবরস্থানে অপেক্ষা করছিলেন। এক ব্যক্তি ওই কবরস্থানের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় তাঁদের দেখে ফেলেন। তিনি গ্রামের অন্য বাসিন্দাদের ঘটনাটি জানান। এরপর গ্রামবাসী সেখানে গিয়ে ধারালো অস্ত্রসহ তাঁদের দুজনকে ধরে ফেলেন। তাঁরা ঘটনাটি থানা-পুলিশকে জানান। পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থলে গিয়ে দুই বৃদ্ধকে থানায় নিয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন

গ্রামবাসীর ভাষ্য, দুই বৃদ্ধ কবিরাজি করেন। তাঁরা দুজন রাতের বেলায় কবরস্থান গিয়ে কবর খুঁড়ে মৃত ব্যক্তির মাথা কাটার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।

কালাই থানার ওসি সেলিম মালিক প্রথম আলোকে বলেন, কবরস্থানে গিয়ে কবর খুঁড়ে মৃত ব্যক্তির মাথা কাটার প্রস্তুতি নেওয়ার সময় গ্রামবাসী দুই বৃদ্ধকে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন। আটক ব্যক্তিদের থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। আটক ব্যক্তিরা এলাকায় সাপুড়ে ও কবিরাজ হিসেবে পরিচিত।

মন্তব্য করুন