বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিষয়টি নিশ্চিত করে শ্রীপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ মোল্লা সন্ধ্যায় প্রথম আলোকে বলেন, পরিবারটি তাঁর ইউনিয়নের হলেও নদীভাঙনের কবলে পড়ে পাশের আলীয়াবাদ ইউনিয়নের গাছুরিয়া গ্রামে গিয়ে বসতি গড়ে। ঝড়ে ঘরচাপা পড়ে দুজনের মৃত্যু হয়।

জয়নবের স্বামী আবদুল বারেক জানান, আজ সকাল থেকে মেঘলা আকাশ ও দমকা হাওয়া বইছিল। এ জন্য তাঁরা পরিবারের সবাইকে নিয়ে ঘরেই ছিলেন। বিকেল ৪টার দিকে হঠাৎ ঝোড়ো বাতাস শুরু হয়। অল্প সময়ের মধ্যে তা ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেয়। ঝড়ে তাঁদের কাঁচা ঘরটি ধসে পড়ে। ঘরের নিচে চাপা পড়েন তাঁরা। পরে স্থানীয় লোকজন এসে তাঁকে এবং তাঁর দুই ছেলেমেয়েকে ঘরের নিচ থেকে জীবিত উদ্ধার করলেও বাবা রুস্তুম আলী ও স্ত্রী জয়নবকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করেন।

স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দা জানান, আকস্মিক ঝড়ে ওই গ্রামের আরও সাত থেকে আটটি বাড়ি ধসে পড়েছে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই ঝড় তাঁদের বাড়িঘর তছনছ করে দেয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন