default-image

বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় আহত এক কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকের মৃত্যু হয়েছে। বরিশালের শের-ই–বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে আফসার হোসেন সিকদার (৫১) নামের ওই ব্যক্তি মারা যান।

পারিবারিক সূত্র জানায়, রোববার দুপুরে প্রতিপক্ষের লোকজন তাঁর ওপর হামলা চালালে তিনি গুরুতর আহত হন। ওই দিনই তাকে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। আফসার মেহেন্দীগঞ্জ পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নূরুল হক জোমাদ্দারের (পানজাবি প্রতীক) পক্ষে কাজ করছিলেন। ৩০ জানুয়ারি মেহেন্দীগঞ্জ পৌরসভায় ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

নিহত আফসারের ছেলে রাসেল সিকদার বলেন, নূরুল হকের পক্ষে কাজ করায় প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আওয়ামী লীগের সমর্থক নিপ্পন তালুকদারের (উটপাখি) লোকজন গত শনিবার আফসারকে হুমকি দেয়। এর জের ধরে পরদিন রোববার বেলা দেড়টার দিকে পৌর শহরের পাতারহাট আরসি কলেজের সামনে প্রতিপক্ষের লোকজন আফসারের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। তারা ইট দিয়ে তাঁর মাথায় আঘাত করে। এতে তিনি অচেতন হয়ে পড়লে প্রথমে তাঁকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় প্রতিপক্ষকে দায়ী করে অভিযুক্তদের কঠোর শাস্তির দাবি জানায় আফসারের পরিবার।

কাউন্সিলর প্রার্থী নূরুল হক জমাদ্দার অভিযোগ করেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে আফসারকে হত্যা করা হয়েছে।

বিষয়টি সম্পর্কে জানতে নিপ্পন চৌধুরীর মুঠোফোনে বেশ কয়েকবার কল দেওয়া হলেও তাঁর ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

বরিশালের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাহজাহান বলেন, এ ঘটনা তদন্ত করে মামলাসহ যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন