ওই গৃহবধূর স্বামী বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে তিনি বাড়ির বাইরে ছিলেন। এ সুযোগে অভিযুক্ত সুমন ভূঁইয়া ও ইউনুস তাঁর ঘরে প্রবেশ করেন। এ সময় ইউনুস তাঁর মেয়ের গলায় ছুরি ধরেন এবং সুমন ভূঁইয়া তাঁর স্ত্রীকে ধর্ষণ করেন। পরে তাঁর স্ত্রী চিৎকার করলে তাঁরা পালিয়ে যান। এ ঘটনায় তাঁর স্ত্রী শারীরিক ও মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁকে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ শহীদ হোসেন বলেন, অভিযোগ পেয়ে সুমন ভূঁইয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অপর আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ চাঁদপুর সরকারি জেলারেল হাসপাতালে ভর্তি।