default-image

দিনাজপুরের বিরামপুর পৌর এলাকার পলাশবাড়ি গ্রামে মেয়ের বাড়ি। খুব সকালে সাইকেলে করে মেয়েকে দেখতে তাঁর বাসায় গিয়েছিলেন বাবা আবদুল হাদী (৫৫)। ফেরার পথে রাস্তা পারাপারের সময় ট্রাকের চাপায় শরীর দ্বিখণ্ডিত হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন তিনি। এ ঘটনায় পুলিশ ট্রাকটি জব্দ করেছে। তবে চালক ও তাঁর সহযোগী পালিয়ে গেছেন।
আজ শুক্রবার সকাল সাতটার দিকে দিনাজপুর-ঢাকা মহাসড়কের বিরামপুর কলেজ বাজারের বটতলী মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আবদুল হাদী বিরামপুর পৌরসভার পারভবানীপুর (মুন্সিপাড়া) মহল্লার আবদুস সোবহানের ছেলে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজ সকালে আবদুল হাদী সাইকেল নিয়ে মেয়ের বাড়ি থেকে বিরামপুর শহরে আসছিলেন। পথে কলেজ বাজার বটতলী মোড়ে রাস্তা পারাপারের সময় পেছন থেকে আসা আলুবোঝাই চলন্ত ট্রাকের নিচে চাপা পড়েন তিনি। এতে শরীর দ্বিখণ্ডিত হয়ে ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হন। পরে স্থানীয় লোকজন ট্রাকটি আটক করে পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ এসে ট্রাকটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান মনির বলেন, রাস্তা পারাপারের সময় আলুবোঝাই ট্রাকের চাপায় সাইকেল আরোহী আবদুল হাদীর মৃত্যু হয়। ট্রাকটি জব্দ করা হয়েছে। হাদীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের পরিবার থেকে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0