default-image

যশোর-নড়াইল মহাসড়ক। মোটরসাইকেলের পেছনে যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কা। বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে মারা গেলেন মোটরসাইকেলের আরোহী এক নারী। এ দুর্ঘটনায় তাঁর মেয়েও আহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার চাড়াভিটা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ওই নারীর নাম মিতু খাতুন (২৬)। তিনি বাঘারপাড়া উপজেলার দক্ষিণ শ্রীরামপুর গ্রামের মাসুদ কবিরের স্ত্রী। দুর্ঘটনায় এই দম্পতির মেয়ে নাফিজা (২) আহত হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ব্যক্তির বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে মেয়েকে নিয়ে মিতু খাতুন তাঁর ননদের জামাই ফজলে করিম গাজীর মোটরসাইকেলে উপজেলার জামালপুর গ্রাম থেকে বাড়িতে ফিরছিলেন। বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে মোটরসাইকেলটি বাঘারপাড়া-চাড়াভিটা সড়ক থেকে যশোর-নড়াইল মহাসড়কে ওঠে। এ সময় যশোর থেকে নড়াইলগামী একটি যাত্রীবাহী বাস মোটরসাইকেলের পেছনে ধাক্কা দেয়। এতে মিতু খাতুন মোটরসাইকেল থেকে মহাসড়কের ওপর ছিটকে পড়েন। এ সময় বাসের পেছনের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। এ ঘটনায় তাঁর দুই বছরের মেয়ে নাজিফার পা ভেঙে গেছে। তবে মোটরসাইকেল চালক অক্ষত আছেন।

বাঘারপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) ফিরোজ উদ্দীন বলেন জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। বাসটি আটক করা হয়েছে। তবে চালক পালিয়ে গেছেন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন