default-image

দুই বন্ধু মোটরসাইকেলে চড়ে ঘুরতে গিয়েছিল জাজিরা উপজেলা সদরে। ফেরার পথে মোটরসাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারালে সড়কের পাশের একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে পড়ে যায় তারা। এতে ঘটনাস্থলেই একজনের মৃত্যু হয়। আরেকজনের মৃত্যু হয় চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে। শুক্রবার রাতে ঢাকা-শরীয়তপুর সড়কে আন্দারমানিক এলাকায় মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত দুই বন্ধু বায়েজিদ সিকদার ও অভি আকন। দুজনেরই বয়স ১৬ বছর। তারা শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার ডগ্রী ইসমাইল হোসেন স্কুল অ্যান্ড কলেজের এ বছরের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল।

ঘটনাস্থলেই একজনের মৃত্যু হয়। আরেকজনের মৃত্যু হয় চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে।

নড়িয়া থানা ও স্থানীয় সূত্র জানায়, নড়িয়া উপজেলার রাজনগর ইউনিয়নের কাজী কান্দি গ্রামের সোলেমান আকনের ছেলে অভি আকন ও দেলোয়ার সিকদারের ছেলে বায়েজিদ সিকদার। তারা সহপাঠী ও ঘনিষ্ঠ বন্ধু। দুই বন্ধু শুক্রবার সন্ধ্যায় জাজিরা উপজেলা সদর এলাকায় ঘুরতে গিয়েছিল। রাতে তারা নিজেদের বাড়ির দিকে ফিরছিল। পথে ঢাকা-শরীয়তপুর সড়কের আন্দারমানিক এলাকায় মোটরসাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তায় পাশের একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা খায়। এতে তারা ছিটকে পড়ে যায়, মাথায় আঘাত লাগে। স্থানীয় লোকজন আহত অবস্থায় বায়েজিদ ও অভিকে শরীয়তপুর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বায়েজিদকে মৃত ঘোষণা করেন। আর অভিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়। ঢাকায় নেওয়ার পথে রাতে অভিরও মৃত্যু হয়।

নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অবনী শঙ্কর কর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ওই কিশোরদের কারোরই মোটরসাইকেল চালানোর অভিজ্ঞতা ও ড্রাইভিং লাইসেন্স ছিল না। তারা বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালাচ্ছিল।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন