default-image

মাদ্রাসার এতিম শিক্ষার্থীদের খাবারের জন্য ধান সংগ্রহে বের হয়েছিলেন তিন শিক্ষক। নাটোর শহর থেকে ধানসমৃদ্ধ সিংড়া এলাকায় পৌঁছানোর পর পেছন থেকে একটি ট্রাক তাঁদের মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই দুই শিক্ষক মারা যান। অন্যজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়া হয়। ঘটনাস্থলে পড়ে ছিল ধান নেওয়ার জন্য আনা বস্তা ও মোটরসাইকেল।

আজ শনিবার সকাল সাড়ে সাতটায় নাটোরের সিংড়া উপজেলার ফেরিঘাট সেতুর যাত্রীছাউনির সামনে নাটোর-বগুড়া মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। চালক ও ট্রাকটিকে আটকাতে পারেনি পুলিশ।

নাটোরের ঝলমলিয়া হাইওয়ে থানার পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নাটোর শহরের তেবাড়িয়া হালিমাতুস সাদিয়া মাদ্রাসার তিন শিক্ষক আবাসিক এতিম শিক্ষার্থীদের খাবারের জন্য ধান সংগ্রহ করতে মোটরসাইকেলে সিংড়ায় যাচ্ছিলেন। সকাল সাড়ে সাতটার দিকে তাঁরা সিংড়া ফেরিঘাট সেতুর যাত্রীছাউনির সামনে পৌঁছালে পেছন থেকে একটি ট্রাক মোটরসাইকেলকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই ওই মাদ্রাসার শিক্ষক খলিলুর রহমান (৩৫) ও বেলাল হোসেন (৩৬) মারা যান। খলিলুর রহমানের বাড়ি সিরাজগঞ্জের সলঙ্গা উপজেলায় এবং বেলাল হোসেনের বাড়ি একই জেলার রায়গঞ্জ উপজেলার ডুমরাই গ্রামে।

বিজ্ঞাপন
দুজনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ট্রাকটিকে শনাক্ত করে চালককে আটকের চেষ্টা চলছে।
আবদুল খালেক, উপপরিদর্শক, হাইওয়ে থানা

অন্য শিক্ষক আবদুল হামিদকে (৪০) গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে সিংড়া হাসপাতালে এবং পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। তাঁর বাড়ি নাটোর শহরের উত্তর বড়গাছা মহল্লায়।

হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবদুল খালেক বলেন, খবর পেয়ে তাঁরা দুজনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতালে পাঠান। ট্রাকটিকে শনাক্ত করে চালককে আটকের চেষ্টা চলছে।

আহত শিক্ষক আবদুল হামিদের ভাই হাসান আলী বলেন, সিংড়া অঞ্চলে বর্তমানে বোরো ধান কাটার মৌসুম চলছে। এ কারণে হতাহত শিক্ষকেরা মাদ্রাসার আবাসিক শিক্ষার্থীদের খাবারের জন্য ওই এলাকায় ধান সংগ্রহ করতে যাচ্ছিলেন। ফজরের নামাজ শেষে তাঁরা বস্তা নিয়ে মোটরসাইকেলে বের হয়েছিলেন। সিংড়ায় পৌঁছানোমাত্র একটা ট্রাক তাঁদের চাপা দিলে হতাহত হওয়ার ওই ঘটনা ঘটে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন