বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দুর্ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী আবদুল বাকেনসহ কয়েকজন জানান, গতকাল দুপুরে তাঁরা সড়কে বিকট শব্দ শুনতে পান। তখনই তাঁরা সড়কে একটি মোটরসাইকেল ও আরোহীকে সড়কে পড়ে থাকতে দেখেন। তাঁরা বলেন, রাজবাড়ীগামী দ্রুতগতির একটি কাভার্ড ভ্যান আবদুল মালেকের মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। এ সময় আবদুল মালেকের বাঁ পা কাভার্ড ভ্যানের চাকার নিচে চলে যায়। কিন্তু কাভার্ড ভ্যানটি তখন না থেমে আহত মালেক মোল্লাকে টানতে টানতে কিছুদূর নিয়ে যায়। পরে তাঁর বাঁ পায়ের নিচের অংশ ভেঙে শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে সড়কে পড়ে যায়।

খবর পেয়ে গোয়ালন্দ ফায়ার সার্ভিসের লোকজন দ্রুত তাঁকে ভ্যানে করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। তবে সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে রাতেই তিনি মারা যান।

গোয়ালন্দ মোড় আহ্লাদীপুর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলোয়ার হোসেন বলেন, মোটরসাইকেলটি দৌলতদিয়া ঘাটের দিকে যাচ্ছিল। আর কাভার্ড ভ্যানটি রাজবাড়ীর দিকে যাচ্ছিল। মোটরসাইকেল আরোহী হঠাৎ উল্টো পথে মোড় নেওয়ায় মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। রাত ১০টার দিকে সুরতহাল শেষে পরিবারের আবেদনে ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ তাদের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়। এদিকে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় কাভার্ড ভ্যানটি জব্দ করা হয়েছে। তবে ওই কাভার্ড ভ্যানের চালক পলাতক।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন