default-image

স্ত্রী ও আড়াই বছরের সন্তানকে পেছনে বসিয়ে মোটরসাইকেল চালাচ্ছিলেন মিজানুর রহমান। সড়কের একটি ভাঙা অংশে ঝাঁকুনি খেয়ে মোটরসাইকেলের পেছন থেকে ছিটকে পড়েন মা–ছেলে। ঠিক তখনই সামনে থেকে আসা একটি ট্রাক তাঁদের চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মা–ছেলের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়।

আজ শনিবার সন্ধ্যার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদীর শিবপুরের বড়ইতলা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত দুজন হলেন ঝিনাইদহ সদর উপজেলার মিজানুর রহমানের স্ত্রী নাজমা আক্তার (২৮) ও তাঁদের আড়াই বছরের সন্তান সিয়াম হোসেন। এ ঘটনায় মিজানুর রহমান কোনরকম আহত হননি। মোটরসাইকেলটিও অক্ষত আছে।

হাইওয়ে পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানান, শনিবার সন্ধ্যার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক দিয়ে ওই তিনজন মোটরসাইকেলে করে কিশোরগঞ্জের ভৈরবের দিকে যাচ্ছিলেন। সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে শিবপুরের বড়ইতলা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় মোটরসাইকেলটি মহাসড়কের একটি ভাঙা অংশে ঝাঁকুনি খায়। এতে ওই মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়েন নাজমা আক্তার ও সিয়াম হোসেন। এ সময় সামনে থেকে আসা ঢাকাগামী একটি ট্রাক তাঁদের চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই ওই দুজনের মৃত্যু হয়। পরে ইটাখোলা হাইওয়ে ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাঁদের দুজনের লাশ উদ্ধার করে।

ইটাখোলা হাইওয়ে ফাঁড়ির উপপরিদর্শক জহিরুল ইসলাম জানান, ঘটনাস্থল থেকে নিহত ওই নারী ও শিশুর লাশ সুরতহাল শেষে ইটাখোলা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়িতে নেওয়া হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য তাঁদের লাশ নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। ওই ট্রাক ও তার চালককে আটক করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0