বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ সময় মোনতাহেনা তাঁর নিখোঁজ স্বামীকে উদ্ধারের জন্য প্রধানমন্ত্রীসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তা চেয়েছেন। তিনি কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানান, তাঁদের একটি কন্যাশিশু ও শিশু পুত্র রয়েছে। স্বামীকে না পেয়ে তিনি এবং সন্তানসহ পরিবারের সদস্যরা পাগলপ্রায়। সন্তানেরা প্রতিনিয়ত তার বাবা কোথায় তা জানতে চায়।

সংবাদ সম্মেলনে ব্যবসায়ী ইমাম মেহেদীর স্ত্রী মোনতাহেনা, তাঁর তিন বছরের মেয়ে জাওসান, দেড় বছরের ছেলে আফরাহিম, ছোট ভাই রিজভী আহমেদ, রিজভীর স্ত্রী সানজিদাসহ পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

মেহেদী হাসানের ছোট ভাই রিজভী আহমেদ জানান, তাঁর ভাই একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী। তাঁদের বাবা লাল মাহমুদ জোড়বাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিআইপি। তাঁদের মাছের খামার ও ইটভাটার ব্যবসা রয়েছে। দলীয় কোনো পদে না থাকলেও তাঁরা দুই ভাই আওয়ামী লীগের রাজনীতি করেন।

এ ব্যাপারে ফুলবাড়িয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) কামাল হোসেন জানান, মেহেদী হাসান নিখোঁজের ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় জিডি হয়েছে। পুলিশ তাঁকে খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে। একজন পুলিশ উপপরিদর্শককে এ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন