বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গতকাল মঙ্গলবার সকাল আটটা থেকে আজ বুধবার সকাল আটটা পর্যন্ত সময়ে ময়মনসিংহ সদরের আনোয়ারা (৫০), শুকুর আলী (৬০) ও ফজলুল হক (৫৮) করোনার উপসর্গে মারা যান।

করোনা ইউনিটের ফোকাল পারসন মহিউদ্দিন খান বলেন, করোনা ডেডিকেটেড ইউনিটে নতুন ২২ জনসহ আজ সকাল পর্যন্ত ১১০ জন রোগী ভর্তি আছেন। তাঁদের মধ্যে আইসিইউতে ১৩ জন চিকিৎসাধীন।

জেলার সিভিল সার্জন নজরুল ইসলাম বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় ময়মনসিংহ জেলায় ৩১১টি নমুনা পরীক্ষায় ১৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৪ দশমিক ৫০। আজ সকাল পর্যন্ত জেলায় মোট করোনায় আক্রান্ত ২১ হাজার ৮০৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২০ হাজার ৬৭৮ জন। জেলায় করোনায় মোট ২৮৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বিভাগে করোনা শনাক্ত হার ৪ শতাংশের নিচে

ময়মনসিংহ বিভাগে গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে আজ বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ৫০৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৩ দশমিক ৭৮। এ সময় করোনায় একজন মারা গেছেন। সুস্থ হয়েছেন ৫৭ জন। আজ দুপুরে ময়মনসিংহ বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

বিভাগে নতুন করোনা শনাক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ময়মনসিংহে সর্বোচ্চ ১৪ জন, নেত্রকোনা ও শেরপুরে ২ জন করে এবং জামালপুরে ১ জন রয়েছেন।

ময়মনসিংহ বিভাগের মধ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হন গত বছরের ৬ এপ্রিল জামালপুরে। সেই থেকে এ পর্যন্ত বিভাগের চার জেলায় মোট ৩৬ হাজার ৫১৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের সংখ্যা বিবেচনায় জেলাগুলোর মধ্যে শীর্ষে আছে ময়মনসিংহ। এ জেলায় ২১ হাজার ৮০৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। সবচেয়ে কম শেরপুরে ৪ হাজার ৬৯৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

বিভাগে করোনায় এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৫৯৪ জন। মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৬৩। মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ময়মনসিংহে সর্বোচ্চ ২৮৬ জন, দ্বিতীয় সর্বোচ্চ নেত্রকোনায় ১২৪ জন, জামালপুরে ৯৪ জন এবং শেরপুরে ৯০ জন রয়েছেন।

ময়মনসিংহ স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক শাহ আলম বলেন, করোনা পরিস্থিতি এখন যথেষ্ট নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। তারপরও করোনা প্রতিরোধে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি এবং সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে হবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালু হয়েছে, তাই শিক্ষার্থীদের সার্বক্ষণিক মাস্ক পরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন