default-image

যশোর-৪ (বাঘারপাড়া-অভয়নগর) আসনের সাংসদ রণজিত কুমার রায় কোভিড-১৯–এ আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি যশোর সেনানিবাসের সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। আজ মঙ্গলবার সকালে যশোরের সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহীন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

যশোরের সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সোমবার রাতে সাংসদ রণজিত রায়ের যশোর শহরের রেল সড়কের বাসভবন থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়। একই সঙ্গে তাঁর পরিবারের আরও সাত সদস্যের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। রাতেই নমুনাগুলো বিশেষ অ্যাম্বুলেন্সে করে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনোম সেন্টারে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। রাত সাড়ে নয়টার দিকে পরীক্ষাগার থেকে মৌখিকভাবে পরীক্ষার ফলাফল জানানো হয়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে যশোরের সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহীন বলেন, সাংসদ রণজিত রায় কয়েক দিন ধরে জ্বরে আক্রান্ত হলে করোনা সংক্রমণের সন্দেহ হয়। গতকাল রাতে সাংসদ রণজিত রায় ও তাঁর পরিবারের অন্য আট সদস্যের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে জেনোম সেন্টারে পাঠানো হয়। রাতেই বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনোম সেন্টার থেকে জানানো হয়েছে যে সাংসদ রণজিতের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। তবে পরিবারের অন্য সদস্যদের শরীরের করোনাভাইরাস নেই।

সিভিল সার্জন জানান, পরীক্ষার ফলাফল সাংসদ রণজিত রায়কে জানিয়ে দেওয়া হলে তিনি যশোর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসা নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেন। সে অনুযায়ী রাতেই তাঁকে সিএমএইচে ভর্তি করা হয়েছে।

সাংসদ রণজিত রায়ের ছেলে রাজিব রায় আজ সকালে বলেন, ‘বাবার শরীরে করোনার তেমন কোনো উপসর্গ নেই। দুই দিন আগে জ্বর ছিল। সেটাও সকালে চলে গেছে। তাঁর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে বলে আমরা বাসায় রাখার ঝুঁকি নিইনি। কারণ, তাঁর বয়স ষাটোর্ধ্ব। সিএমএইচের আইসোলেশনে তাঁকে রাখা হয়েছে।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0