বিজ্ঞাপন

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ইউনুস আলী আজ বৃহস্পতিবার বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেন। ভারত থেকে ফেরার সময় তাঁর করোনা পরীক্ষার প্রতিবেদনে করোনা পজিটিভ বলে উল্লেখ ছিল। এ কারণে তাঁকে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা যশোর জেনারেল হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে পাঠান। কিন্তু সন্ধ্যার দিকে তিনি ওই হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে যশোর জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) আরিফ আহমেদ বলেন, বিকেলে করোনা পজিটিভ ওই ব্যক্তিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নার্সরা সন্ধ্যার দিকে ওই ওয়ার্ডের অন্য রোগীদের চিকিৎসা দিচ্ছিলেন। এ সময় ওই ব্যক্তি মুঠোফোনে কথা বলার ছলে ওয়ার্ডের বাইরে বেরিয়ে যান। তখন ওয়ার্ডের ফটকে পুলিশি পাহারা ছিল। তার মধ্যেই তিনি পালিয়ে যান। বিষয়টি জেলা সিভিল সার্জন ও পুলিশ সুপারকে জানানো হয়েছে।

এর আগে গত ২৪ ও ২৫ এপ্রিল এই হাসপাতাল থেকে ভারতফেরত ৭ জনসহ মোট ১০ জন করোনা রোগী পালিয়ে যান। সংবাদমাধ্যমে বিষয়টি নিয়ে প্রতিবেদন হওয়ার পর ২৬ এপ্রিল রাতে ওই রোগীদের আটক করে হাসপাতালে ফিরিয়ে আনে পুলিশ। সর্বশেষ গত ১০ মে ভারতফেরত ৭ করোনা রোগী হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পান। এরপর তাঁদের গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করে পুলিশ। ওই দিন বিকেলেই আদালত তাঁদের জামিনে মুক্তি দেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন