প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে হাইওয়ে পুলিশ জানায়, আজ সকালে শামিম তাঁর চাচাতো ভাই নয়নকে নিয়ে মোটরসাইকেলে করে সদর উপজেলার হাশিমপুর গ্রামে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে তাঁরা যশোর-মাগুরা মহাসড়ক দিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। দুপুর ১২টার দিকে মোটরসাইকেলটি আমতলা এলাকায় পৌঁছালে মাগুরাগামী যাত্রীবাহী বাস মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়। এতে মোটরসাইকেলে থাকা দুজনই মহাসড়কের ওপর ছিটকে পড়ে আহত হন।

এ সময় স্থানীয় লোকজন তাঁদের উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক শামিমকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মুরসালিন রহমান জানান, হাসপাতালে আনার আগেই শামিম মারা যান। নয়নের অবস্থাও শঙ্কামুক্ত নয়।

বারোবাজার হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মেজবাহ উদ্দিন বলেন, মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেওয়া বাসটি পালিয়ে গেছে। তবে বাসটি আটকের চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন