default-image

যশোর রেলওয়ে জংশনের জায়গা থেকে ১৫০টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। যশোর জেলা প্রশাসন ও রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের যৌথ অভিযানে আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এসব স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।

উচ্ছেদ হওয়া জায়গায় মালবাহী ট্রেনের পণ্য ওঠানো-নামানোর জন্য ইয়ার্ডের পরিসর বাড়ানোর কাজ শুরু হবে। অভিযানের নেতৃত্বে দেন বাংলাদেশ রেলওয়ের (পশ্চিমাঞ্চল) নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. নুরুজ্জামান ও যশোর জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাফিজুল হক।

রেলওয়ের কর্মকর্তারা জানান, ভারত ও বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা মালবাহী ট্রেনের পণ্য ওঠানো-নামানোর জন্য যশোর রেলওয়ে জংশনের ইয়ার্ডের পরিসর বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কিন্তু জংশনের দক্ষিণ-পশ্চিম পাশের বড় অংশ এত দিন বেদখলে ছিল। বারবার নোটিশ দিলেও দখলদারেরা জায়গা ছাড়েননি। এ কারণে বুলডোজার নিয়ে সব স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে।

যশোর জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাফিজুল হক বলেন, উচ্ছেদ অভিযান চালানো অংশে ১৫০টির মতো ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান, দোকান, গুদাম ও বসতবাড়ি ছিল। এর মধ্যে কয়েকটি পরিবারকে আগামী ২ মার্চ পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে স্থাপনা সরিয়ে না নিলে সেগুলো গুঁড়িয়ে দেওয়া হবে।

রেলওয়ে ও জেলা প্রশাসনের যৌথ অভিযানের সময় জেলা পুলিশ, জিআরপি এবং রেলওয়ের নিরাপত্তাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন