বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ট্রাফিক বিভাগ সূত্র জানায়, সিলেট নগরীতে চার রাস্তার মোড় রয়েছে ২৮টি। এর মধ্যে চৌহাট্টা, রিকাবিবাজার, আম্বরখানা, বন্দরবাজার, জিন্দাবাজার, সোবহানীঘাট, লামাবাজার, শেখঘাট মোড়ে ট্রাফিক পুলিশ যানজট নিয়ন্ত্রণ করে। তিন দিক বন্ধ রেখে একদিক উন্মুক্ত করার এই সনাতনি পন্থায় বিড়ম্বনায় পড়তে হয় যানবাহনগুলোকে।

চৌহাট্টা মোড়ের একদিকে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার। রিকাবিবাজারমুখী সড়কে পড়েছে শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতাল, জেলা স্টেডিয়াম, ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল। আরেক দিকে হজরত শাহজালাল (রহ.) দরগাহ। সেখান থেকে আম্বরখানামুখী সড়কটি সরাসরি ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে গিয়েছে। এ সড়কপথ দিয়ে পর্যটকেরা সাদা পাথর, বিছনাকান্দি, রাতারগুল যাতায়াত করেন।

ট্রাফিক পুলিশ জানায়, প্রতি শুক্রবার চৌহাট্টা ঘিরে যানবাহন ও মানুষের ভিড় থাকে। আবার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে কোনো অনুষ্ঠান থাকলে বিপরীত দিকে জনারণ্য হয়ে হয়ে পড়ে। এ অবস্থায় চারটি রাস্তার মধ্যে অন্তত একটি দিক ট্রাফিক সিগন্যালমুক্ত রাখলে যানজটের সঙ্গে মানুষের জটলা কম হবে। শুক্রবার সামনে রেখে গতকাল দিনভর তাঁরা পরীক্ষামূলকভাবে এ উদ্যোগ চালু করেন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, চৌহাট্টা মোড়ের রিকাবিবাজারমুখী সড়কের এক পাশে ট্রাফিক সিগন্যাল পোস্টে রশি বেঁধে বাঁ দিক মুক্ত রাখা হয়েছে। প্রবেশ মুখে সাইনবোর্ড টানিয়ে অনেকটা লেনের মতো করা হয়েছে। ফলে রিকাবিবাজার থেকে হজরত শাহজালাল (রহ.) দরগাহ এলাকায় যাতায়াতকারীরা অনায়াসে চলাচল করছেন।

সিলেট মহানগর পুলিশের (ট্রাফিক) অতিরিক্ত উপকমিশনার জ্যোতির্ময় সরকার বলেন, উদ্যোগটির সফলতা দেখে নগরীর অন্য মোড়ে এটি কার্যকর করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন