বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজ মঙ্গলবার শহরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, নগরের পাটগুদাম, চরপাড়া, গাঙ্গিনারপার, ত্রিশাল বাসস্ট্যান্ড এলাকা, নতুন বাজার, জিলা স্কুল মোড়, টাউন হল মোড় ও আকুয়া মাদ্রাসা কোয়ার্টার এলাকায় যানজট বেশি। এসব এলাকায় সকাল থেকে রাত পর্যন্ত যানবাহনের ভিড় লেগে থাকে। দুপুরে নগরের নতুন বাজার, জিলা স্কুল মোড়, টাউন হল মোড় এলাকায় শত শত ইজিবাইক ও রিকশা আটকে থাকে। তাই অনেকে হেঁটে গন্তব্যে যায়।

নতুন বাজার এলাকায় আউয়াল নামের এক পথচারী বলেন, স্কুল-কলেজ খোলার পর থেকে বেড়েছে যানজট। যানজটের কারণে বেশির ভাগ সময় তিনি হেঁটেই চলাচল করেন। কিছুটা সময় বাঁচে।

সকালে শম্ভুগঞ্জের চায়না মোড়ে দেখা যায়, চার কিলোমিটার সড়কজুড়ে যানবাহন ধীরগতিতে চলছে। চায়না মোড় এলাকায় বেশি যানজট। এলাকার বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, শম্ভুগঞ্জ থেকে ময়মনসিংহ নগরের পাটগুদাম ব্রিজ পর্যন্ত সড়কের সংস্কারকাজ চলছে। শম্ভুগঞ্জের চায়না মোড় এলাকায় নতুন সেতু নির্মাণের কাজ চলছে। চায়না মোড়ের মটকিভাঙা সেতু বেহাল। তাই যানবাহন খুব ধীরে ধীরে চলে। ফলে ওই এলাকায় বেশির ভাগ সময় তীব্র যানজট লেগে থাকে।

টোলপ্লাজা এলাকায় ইজিবাইকচালক কাউসার বলেন, যানজটের কারণে দিনের বেশির ভাগ সময় নষ্ট হয়ে যায়। তাঁদের রোজগার কমে গেছে।

ময়মনসিংহ ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক (প্রশাসন) সৈয়দ মাহবুবুর রহমান বলেন, পুরো নগরে যানজট থাকলেও সেটি নিয়ন্ত্রণের মধ্যে। তবে শম্ভুগঞ্জ এলাকার যানজট তাঁদের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। মটকিভাঙা সেতুটি বেহাল হওয়ার কারণে এ যানজট। এ সেতুর পাশে যে সেতুটি নির্মিত হচ্ছে, সেটি শেষ হতে আরও প্রায় ছয় মাস লাগবে। তখন সমস্যার সমাধান হতে পারে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন