বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ঢাকা শহরের আদাবর এলাকার বাসিন্দা এম এম ইনফ্রাস্ট্রাকচার লিমিটেডের মালিক প্রকৌশলী হাফিজুর রহমান জানান, তিনি পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধায় বিজিবির একটি উন্নয়নমূলক কাজ করছেন। জরুরি প্রয়োজনে রাতে ঢাকায় ফিরতে এ বিমানে ওঠেন। বিমানে সব যাত্রী ওঠানোর পর যান্ত্রিক ত্রুটির কথা ঘোষণা দেওয়া হয়। প্রথমে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করতে বলা হলেও রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত বিমান কর্তৃপক্ষ কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। অপর দিকে এটি ছিল সৈয়দপুর থেকে বিমানের সর্বশেষ ফ্লাইট। তাই যাত্রীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

এ বিষয়ে ইকো হেরিটেজ হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টের জেনারেল ম্যানেজার মাসুদ রানা জানান, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস কর্তৃপক্ষ বিমানের ২৬ যাত্রীর জন্য বুকিং দিয়েছে। রাত সাড়ে ১১টার দিকে ওই সব যাত্রী কক্ষে উঠেছে। যাত্রীদের মধ্যে শিশু ও নারী রয়েছে। যাত্রী ছাড়াও তাঁদের হোটেলে বিমানচালকসহ পাঁচ কর্মকর্তা-কর্মচারীও রয়েছেন।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের নীলফামারী জেলা ব্যবস্থাপক হারুন আর রশীদের মুঠোফোনে কল করলে তিনি ফোন ধরেননি। তবে ওই বিমানের যাত্রীরা শুক্রবার সকালের ফ্লাইটে ঢাকায় ফেরার কথা রয়েছে বলে সূত্র জানিয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন