বিজ্ঞাপন

সিলেট সিভিল সার্জন ও বিমানবন্দর সূত্রে জানা গেছে, যুক্তরাজ্যে নতুন ধরনের (স্ট্রেইন) করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির পর সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী চলতি মাস থেকে যুক্তরাজ্য থেকে আসা ব্যক্তিদের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিন থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়। এর জন্য সিলেটে বেশ কয়েকটি হোটেল নির্ধারণ করা হয়। নির্দেশনার পর ৪ জানুয়ারি থেকে ২১ জানুয়ারি পর্যন্ত পাঁচটি ফ্লাইটে ৪০০ জন যাত্রী যুক্তরাজ্য থেকে সিলেটে আসেন। এর মধ্যে বাধ্যতামূলক ১৪ দিন কোয়ারেন্টিন পালন করেছেন ৪১ জন। নতুন নিয়মে কোয়ারেন্টিন শেষ করে করোনার নমুনা পরীক্ষা করে ৩৭২ জন বাড়ি ফিরেছেন।

১৩ জানুয়ারি স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে যুক্তরাজ্যফেরত ব্যক্তিদের জন্য নতুন নির্দেশনা দেওয়া হয়। এতে যুক্তরাজ্যফেরত ব্যক্তিদের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিন কমিয়ে চার দিন এবং করোনা পরীক্ষার পর নেগেটিভ ফল এলে নিজ নিজ বাড়িতে আরও ১০ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকার কথা উল্লেখ করা হয়। অন্যদিকে পরীক্ষায় পজিটিভ ফল এলে তাঁদের সরকার–নির্ধারিত আইসোলেশন সেন্টারে ভর্তির নির্দেশনা দেওয়া হয়।

সিলেটের সিভিল সার্জন প্রেমানন্দ মণ্ডল বলেন, যুক্তরাজ্য থেকে আসা ২৮ জনের পরীক্ষার প্রতিবেদনে করোনা পজিটিভ আসে। পরে তাঁদের আইসোলেশনে নেওয়া হয়েছে। তাঁরা চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন