default-image

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন (স্ট্রেইন) সংক্রমণের কারণে যুক্তরাজ্য থেকে সিলেটে আসা আরও ১৫০ জনকে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। তাঁদের নতুন নিয়মে সাত দিন বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে রাখা হবে। পরে তাঁদের করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হবে। ফলাফল নেগেটিভ এলে নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশনা দিয়ে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিন থেকে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। ফলাফল পজিটিভ এলে সরকারনির্ধারিত আইসোলেশন সেন্টারে তাঁদের ভর্তি করা হবে।
আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইট ১৬৬ জন যাত্রী নিয়ে যুক্তরাজ্যের হিথরো বিমানবন্দর থেকে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়। পরে ওই ফ্লাইট থেকে ১৫০ যাত্রী সিলেটে নামেন এবং বাকি ১৬ যাত্রী সকাল সাড়ে ১০টায় ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের উদ্দেশে ছেড়ে যায়।  

যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসের নতুন ধরন (স্ট্রেইন) সংক্রমণের পর বিশ্বের বিভিন্ন দেশ দেশটির সঙ্গে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। তবে বাংলাদেশ যুক্তরাজ্যে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেনি। ১ জানুয়ারি থেকে যুক্তরাজ্যফেরতদের নিজ খরচে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়।  

বিজ্ঞাপন

সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সূত্রে জানা গেছে, আজ সকাল সাড়ে ৯টার দিকে যুক্তরাজ্য থেকে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইট ১৬৬ জন যাত্রী নিয়ে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। ফ্লাইটটি থেকে ১৫০ জন যাত্রী সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নামেন। বিমানের ফ্লাইটটিতে থাকা বাকি ১৬ যাত্রী সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানন্দর থেকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের উদ্দেশে ছেড়ে যায়।

সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপক হাফিজ আহমদ বলেন, যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের নতুন নিয়মে কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে বেলা ১টার দিকে প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় নির্ধারিত হোটেলগুলোতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখানে নুতন নির্দেশনা মোতাবেক বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিন শেষে করোনা পরীক্ষার পর ‘নেগেটিভ’ ফল এলে তাঁদের নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টিনের জন্য পাঠানো হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন