default-image

শামসুল ইসলাম (৬৫) দীর্ঘদিন ধরে যুক্তরাষ্ট্রে থাকতেন। সম্প্রতি দেশে ফিরে ঢাকায় অবস্থান করছিলেন। গতকাল মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রে তাঁর ফেরার কথা ছিল। কিন্তু এর দুই দিন আগে জ্বর ওঠায় নমুনা পরীক্ষা করে ফলাফল করোনা পজিটিভ আসে।

আইসোলেশনে থাকার জন্য গতকাল ঢাকা থেকে বাড়ির পথে রওয়ানা দেন শামসুল ইসলাম। একপর্যায়ে পথেই মারা যান তিনি। তাঁর বাড়ি মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার কাদিপুর ইউনিয়নের কৌলারশি গ্রামে।

এলাকার কয়েকজন বাসিন্দার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, শামসুল যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগোতে প্রায় তিন দশক ধরে থাকতেন। তিনি দীর্ঘদিন নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত ‘সাপ্তাহিক ঠিকানা’র শিকাগো প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেছিলেন। তিনি ২১ মার্চ নমুনা পরীক্ষা করান। গতকাল ঢাকা থেকে বাড়ি ফেরার সময় দুপুর ১২টার দিকে তিনি মারা যান। আজ বুধবার স্বাস্থ্যবিধি মেনে পারিবারিক কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়।

বিজ্ঞাপন

শামসুল ইসলামের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে তাঁর ঘনিষ্ট যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী মৌলভীবাজার-২ আসনের সাবেক সাংসদ এম এম শাহীন তাঁর ফেসবুক স্ট্যাটাসে বলেন, গত বছর শামসুলের দেশে ফেরার কথা ছিল। তখন করোনার প্রকোপ বেশি থাকায় তা সম্ভব হয়নি। প্রকোপ কিছুটা কমলে প্রায় তিন মাস আগে তিনি দেশে ফেরেন। গতকাল যুক্তরাষ্ট্রে ফেরার জন্য প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিলেন। কিন্তু করোনা সংক্রমিত হওয়ায় বাড়িতে গিয়ে আইসোলেশনে থাকতে চেয়েছিলেন। বাড়ি পৌঁছানো আর হয়নি। পথেই দুর্ভাগ্যজনকভাবে মারা গেলেন তিনি। দেশের মাটিতেই তাঁর শেষ আশ্রয় হলো। শামসুলের স্ত্রীসহ তিন সন্তান রয়েছেন।

কুলাউড়া উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোহাম্মদ নূরুল হক আজ বুধবার বিকেলে মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, শামসুল ইসলাম করোনায় সংক্রমিত ছিলেন। করোনার সংক্রমণ আবার শুরু হয়েছে। এ পরিস্থিতিতে তিনি সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন