এ সময় রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার এম এম শাকিলুজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মো. সালাহ উদ্দিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. মাঈন উদ্দিন চৌধুরী, গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার, মোস্তফা মেটাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের পরিচালক মো. সেলিম মুন্সী, যৌনকর্মীদের নিজস্ব সংগঠন দৌলতদিয়া অসহায় নারী ঐক্য সংগঠনের সভানেত্রী ঝুমুর বেগম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

জানতে চাইলে ঝুমুর বেগম প্রথম আলোকে বলেন, ‘করোনা ও বন্যার কারণে এখানকার বাসিন্দারা অসহায়। এ অবস্থায় কোরবানির মাংস পেয়ে অনেক পরিবারের মুখে হাসি ফুটেছে। এভাবে কয়েক বছর ধরে মাংস বিতরণ করছেন ডিআইজি হাবিবুর রহমান। আমরা স্যারের জন্য দোয়া করছি।’

মাংস বিতরণ প্রসঙ্গে রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার এম এম শাকিলুজ্জামান বলেন, ‘হাবিবুর রহমান স্যার সব সময় যৌনপল্লির অসহায় নারী ও তৃতীয় লিঙ্গের বাসিন্দাদের পাশে থাকেন।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন