বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নদীর পাড়ে পরিবার নিয়ে ঘুরতে বের হয়েছিলেন রংপুরের সংস্কৃতিকর্মী ফারুক হোসেন। তিনি বলেন, ‘করোনায় বাড়িতে থাকতে থাকতে হাঁপিয়ে উঠেছি। তাই একটি মোটরসাইকেলে স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে ঘুরতে আসা। এভাবে ঘোরার আনন্দই আলাদা।’

বিকেলে পরিবার নিয়ে অনেককে সময় কাটাতে দেখা যায় কারমাইকেল কলেজ, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও জিলা স্কুলের মাঠে। এসব প্রাঙ্গণে বড়দের সঙ্গে আসা শিশুরা এদিক-সেদিক ছুটোছুটি করছিল।

জিলা স্কুল মাঠে এসেছিলেন প্রাক্তন কয়েক শিক্ষার্থী। সোহেল রানা নামে একজন বলেন, ‘দিগন্তজোড়া খোলা মাঠে কত দিন আসা হয় না। তাই বিনোদন পেতে ঘুরেফিরে এই মাঠে এসে বিশ্রাম নিচ্ছি। মুক্ত বাতাসে বসে শ্বাস নেওয়ার আনন্দই আলাদা।’

বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত রংপুর জেলা শহরের কোথাও অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া জানা যায়নি। জেলা ও মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে নিরাপত্তাব্যবস্থাও জোরদার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সহকারী কমিশনার (ডিবি) আলতাফ হোসেন। তিনি বলেন, পোশাকধারী পুলিশের পাশাপাশি সাদাপোশাকে পুলিশ সদস্যদের টহল রয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন