বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ সম্পর্কে রংপুর ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম বলেন, দীর্ঘদিন ধরে দুদকের একটি মামলায় গোলজার রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ছিল। জামিনে না থাকার কারণে হয়তো তাঁকে আইনের আওতায় নিয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, তবে এটি তাঁর ব্যক্তিগত ব্যাপার। এর সঙ্গে সংগঠনের কোনো সম্পর্ক নেই।

হারাগাছ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শওকত আলী সরকার বলেন, গোলজার রহমানের বিরুদ্ধে আদালতের গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ছিল। আজ বৃহস্পতিবার তাঁকে আদালতে নেওয়া হবে।

গোলজার রহমান কালের কণ্ঠ পত্রিকার রংপুরের আলোকচিত্রী হিসেবে কর্মরত। ২০১৭ সালে রংপুর সিটি করপোরেশনে জনসংযোগ সহকারী হিসেবে কর্মরত অবস্থায় জালিয়াতির ঘটনায় তাঁর বিরুদ্ধে মামলা করেছিল দুদক।

রংপুরের বিশেষ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি এ কে এম হারুন অর রশিদ জানান, রংপুর সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সরফুউদ্দিন আহমেদের সময় গোলজার রহমান ছিলেন জনসংযোগ সহকারী। ২০১৭ সালের ৭ ও ৮ আগস্ট ৪৭টি প্যাকেজের প্রকল্পের কাজের দরপত্র তিনটি জাতীয় পত্রিকায় ছাপার কথা বলা হয়। কিন্তু পরে দেখা যায় পত্রিকায় বিজ্ঞাপন আর ছাপা হয়নি। জালিয়াতি করার অভিযোগে দুদকের রংপুর সমন্বিত কার্যালয়ের উপসহকারী পরিচালক নূর আলম বাদী হয়ে ২০১৯ সালের ২৭ জুলাই হারাগাছ থানায় একটি মামলা করেন। চলতি বছরের ৫ ফেব্রুয়ারি আদালতে এ মামলার অভিযোগপত্র দেওয়া হয়। এরপর গোলজার রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন