বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নগরের চব্বিশহাজারি এলাকায় কথা হলো কয়েক শ্রমজীবী মানুষের সঙ্গে। বেলাল হোসেন নামের এক রাজমিস্ত্রি বলেন, ‘আইজ খুব ঠান্ডা বাতাস। আইজ কাজোত যাই নাই।’

আজ সকালে নগরের শাপলা চত্বর, কেরানীপাড়া চারমাথা মোড়, শিমুলবাগ ও বেতপট্টি এলাকায় শ্রম বেচাকেনার স্থানে শ্রমজীবী মানুষের উপস্থিতিও অনেক কম দেখা যায়। কাজের সন্ধানে ছুটে আসা শ্রমজীবী মানুষ জানান, শিমুলবাগ এলাকায় সাত দিনে কাজ করা মানুষের উপস্থিতি বেশ ভালো ছিল। কিন্তু আজকে সকাল থেকে ঠান্ডা বাতাসের কারণে কাজ করা মানুষ কমে গেছে।

default-image

দিনমজুর আফজাল হোসেন বলেন, ‘রাইত থাকি খুব ঠান্ডা। তার ওপর বাতাস ছাড়ছে। তাই হয়তো কাজ করা মানুষ বাড়ি থাকি কম বেড়াইছে। তার ওপর এই সময় শহরের বাসাবাড়িত কাজও কম।’

রংপুর আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা যায়, রোদ থাকলেও এ অঞ্চলে হিমেল বাতাসের আবহ আছে। গতকাল রাতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১২ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন