default-image

রংপুর বিভাগের আট জেলার ৫৮টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কার্যালয়সহ তাঁদের বাসভবনে ১০ জন করে সশস্ত্র আনসার সদস্য মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ইউএনওদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য এই উদ্যোগে নেওয়া হয়েছে।

আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী রংপুর রেঞ্জের পরিচালকের কার্যালয়ের পক্ষ থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে পরিচালক এ কে এম জিয়াউল আলম স্বাক্ষরিত পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়েছে। রংপুর বিভাগের পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর, নীলফামারী, রংপুর, লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম ও গাইবান্ধা জেলার ইউএনওদের নিরাপত্তার জন্য আনসার বাহিনীর সশস্ত্র সদস্যদের মোতায়েন করা হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

দিনাজপুরে ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বাসভবনে বুধবার দিবাগত রাতে দুর্বৃত্তরা হামলা চালায়। এই সময় ইউএনও ওয়াহিদা খানম ও তাঁর বাবা ওমর আলীকে কুপিয়ে জখম করা হয়। এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ইউএনওদের সুরক্ষা দেওয়ার এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ঘটনার পর প্রথমে ইউএনও ও তাঁর বাবাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় ইউএনও ওয়াহিদা খানমকে বৃহস্পতিবার আড়াইটার দিকে হেলিকপ্টারে ঢাকায় আনা হয়। বেলা তিনটার দিকে তাঁকে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্সেস অ্যান্ড হসপিটালে ভর্তি করা হয়। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে অস্ত্রোপচার কক্ষে নিয়ে যাওয়া হয়। বৃহস্পতিবার রাতে ওই হাসপাতালে তাঁর অস্ত্রোপচার হয়। তাঁর বাবা রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন