বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

শহরের নিউ জুম্মাপাড়া এলাকার বাসিন্দা শহর বানু (৪৫) বলেন, ‘কাইল এলাকার মানুষের মুখে শুনবার পাছি যে আইজ হাইস্কুলোত (উচ্চবিদ্যালয়) প্রথম টিকা দেওয়া হইবে। কিন্তু এটে আসি দেখি স্কুল চলেছে। পরে জানবার পারনো যে পাবলিক লাইব্রেরি হলোত টিকা দেওয়া হইবে। তাই আসিয়া লাইনোত দাঁড়েয়া টিকা দিনো।’

কুকরুল এলাকার বাসিন্দা শমসের মিয়া (৫০) বলেন, ‘গ্রামোত আস্তে আস্তে সবায় টিকা দেওছে। আর টিকা না দিলে কামোত গেইলে আগে পুচ (জিজ্ঞাসা) করে টিকা দেওয়া আছে কি না। টিকা না দিলে শহরোত কাজ পাওয়া যায় না। তাই টিকা দিনো।’

সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা কামরুজ্জামান বলেন, নতুন করে ৫০ হাজার প্রথম ডোজের টিকা এসেছে। তাই জরুরি ভিত্তিতে গতকাল মঙ্গলবার শহরে মাইকে প্রচার চালানো হয়েছে। সেই সঙ্গে প্রতিটি ওয়ার্ডের কাউন্সিলররা তাঁদের নিজেদের উদ্যোগেও প্রচার করেছেন।

কামরুজ্জামান আরও বলেন, এখন একটু প্রচার করতে পারলেই টিকাপ্রত্যাশীরা ছুটে আসেন টিকাকেন্দ্রে। সঙ্গে জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে আসতেও ভুল করেন না তাঁরা। প্রথম ডোজের এই টিকা ছাড়াও রংপুর মেডিকেল কলেজ কেন্দ্রে মডার্নার দ্বিতীয় ডোজের টিকা দেওয়া অব্যাহত রয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন