বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নিহত মমতাজ রাউজান সদর ইউনিয়নের মাঝিপাড়া গ্রামের মুহাম্মদ আব্বাসের ছেলে। তিনি সিএনজিচালিত অটোরিকশা চালাতেন। তাঁর দুই মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে।

সকালে ছেলের দোকানের মাল আনার জন্য ঘর থেকে বের হয়েছিলেন মমতাজুল।

তাঁর স্ত্রী শামসুন নাহার বলেন, তাঁদের ছেলের জ্বালানি তেলের দোকান রয়েছে। প্রতিদিনের মতো সকাল ছয়টায় তাঁর স্বামী ওই দোকানের জন্য অকটেন, ডিজেলসহ মাল আনার কথা বলে ঘর থেকে বের হয়েছিলেন। এরপর বাড়ি থেকে আধা কিলোমিটার দূরে তাঁর গাড়ি রাখার গ্যারেজে ঝুলন্ত লাশ দেখতে পেলে লোকজন তাঁদের খবর দেন। তাঁরা গিয়ে গ্যারেজের জানালা খোলা অবস্থায় দেখেছেন। তিনি বলেন, স্থানীয় জাহাঙ্গীর নামের এক ব্যক্তি তাঁর স্বামীর কাছে এক লাখ টাকা পেতেন। এই টাকা নিয়ে তাঁদের সম্প্রতি ঝগড়াঝাঁটি হয় বলে জানান তিনি।

রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল হারুন প্রথম আলোকে বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়া গেলে ঘটনার প্রকৃত রহস্য উদ্‌ঘাটিত হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন