পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল রাত সাড়ে নয়টার দিকে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী কার্যালয়ের ফটকের সামনে মোটরসাইকেল ও অটোরিকশার মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে মোটরসাইকেলে থাকা ইসা রুহুল ও দাউদ হাসান সড়কের মাঝামাঝি স্থানে ছিটকে পড়ে যান।

এ সময় চট্টগ্রাম থেকে আসা পাহাড়িকা পরিবহনের একটি বাস তাঁদের চাপা দিলে দাউদ ঘটনাস্থলে মারা যান। পরে স্থানীয় লোকজন ইসাকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. কবির হোসেন বলেন, দুজনের লাশের ময়নাতদন্তের শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। চাপা দেওয়া বাসটি জব্দ করা হয়েছে। তবে চালক পলাতক। এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন