বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অব্যাহতি পাওয়া ব্যক্তিরা হলেন বেতাগী ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য শফিউল আলম, ইসলামপুর ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা সদস্য ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুদ্দৌলাহ দুলাল, দক্ষিণ রাজানগর ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা সদস্য ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হক মিয়া এবং লালানগর ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা সদস্য ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম তালুকদার।

বহিষ্কারের কারণ হিসেবে বলা হয়, ওই প্রার্থীদের ৭ নভেম্বর চিঠির মাধ্যমে সতর্ক করার পরও আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বিপক্ষে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। মনোনয়ন প্রত্যাহারের নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে প্রত্যাহার করতে বলা হলেও কেউ তা করেননি।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ওই প্রার্থীদের ৭ নভেম্বর চিঠির মাধ্যমে সতর্ক করার পরও আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বিপক্ষে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। মনোনয়ন প্রত্যাহারের নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে প্রত্যাহার করতে বলা হলেও কেউ তা করেননি। দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেছেন তাঁরা। দলীয় কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাব না দেওয়া, দলীয় নির্দেশনা অমান্য করা ও গঠনতন্ত্র লঙ্ঘনের দায়ে চার আওয়ামী লীগ নেতার স্ব স্ব পদ থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সামশুল আলম তালুকদার বলেন, চারজনকে দল থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের জন্য চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের বরাবর সুপারিশ পাঠানো হয়েছে।

তৃতীয় ধাপে ২৮ নভেম্বর রাঙ্গুনিয়া উপজেলার ১৩টি ইউপিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন