default-image

রাজবাড়ী শহরের বিনোদপুর বড় বাজারের একটি দোকানে মাংসের রং আরও আকর্ষণীয় করতে ব্যবহার করা হয়েছিল রেড আয়রণ অক্সাইড নামের একটি রাসায়নিক উপাদান। আজ শুক্রবার সকালে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের উদ্যোগে অভিযান চালিয়ে রং মিশিয়ে মাংস বিক্রি করা ওই দোকানের বিক্রেতাকে জরিমানা করা হয়।

ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তর রাজবাড়ী কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক শরীফুল ইসলাম বলেন, এসব রং সাধারণত লোহার গ্রিলে দেওয়া হয়। মাংসের রং আকর্ষণীয় করার জন্য অসাধু ব্যবসায়ীরা এই রং ব্যবহার করেন।

সাজা পাওয়া ব্যবসায়ীর নাম রফিক বিশ্বাস (৫৫)। তিনি রাজবাড়ী সদর উপজেলার বানিবহ ইউনিয়নের বানিবহ গ্রামের বাসিন্দা। একই সময় দাম বেশি রাখায় ৫০০ টাকা করে জরিমানা করা হয় তিন গ্যাস ব্যবসায়ীকে।

ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বড় বাজারে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় রফিক বিশ্বাসের দোকানে গরুর মাংসে রেড আয়রণ অক্সাইড মেশানো মাংস পাওয়া যায়। এতে ওই ব্যবসায়ীকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ ছাড়া চার কেজি মাংস ও রেড অক্সাইড জব্দ করা হয়।

বিজ্ঞাপন

অভিযানে নেতৃত্ব দেন ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তর রাজবাড়ী কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক শরীফুল ইসলাম। অভিযানের সময় উপস্থিত ছিলেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক সূর্য কুমার প্রামাণিক, সদর থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. সেলিম, রাজবাড়ী ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তরের পেশকার সবুজ হোসেন।

সিভিল সার্জন মোহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, রেড অক্সাইড একটি রাসায়নিক। রাসায়নিক খাদ্যে ব্যবহার করলে দীর্ঘমেয়াদি বিভিন্ন ক্ষতি হতে পারে। এতে হজমে সমস্যা হয়। ক্যানসারের উপকরণও থাকতে পারে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন