default-image

রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার মাঝবাড়ী ইউনিয়নের শ্রীপুর গ্রামের কাশমিয়া বিলের পাড় থেকে আজ সোমবার সকালে এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ওই নারীর নাম মাঞ্জুয়ারা খাতুন (৪২)। তিনি একই ইউনিয়নের কুষ্টিয়াডাঙ্গী গ্রামের মানিক মণ্ডলের মেয়ে।

পারিবারিক ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ওই নারীর দুটি বিয়ে হয়। প্রথম স্বামীর নাম বিল্লাল হোসেন। তিনি কোমড়পুর গ্রামের নজর আলীর ছেলে। সেই সংসারে তাঁর দুটি ছেলে আছে। বছর দেড়েক আগে চরকুলটিয়া গ্রামের বাসিন্দা মকিম শেখের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়। তাঁদের ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। এরপর তিনি বড় ছেলের সঙ্গে থাকতেন। দুদিন আগে পার্শ্ববর্তী মৌরাট ইউনিয়নের বাগদুলী গ্রামে তিনি বোনের বাড়িতে পাওনা টাকা আনতে যান। বিকেলে সেখান থেকে রওনা দেন। কিন্তু রাতে বাড়ি ফেরেননি। সকালে বিলের পাড়ে তাঁর মরদেহ দেখতে পান স্থানীয় লোকজন। খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য জাহিদুল ইসলাম বলেন, লাশ পাওয়ার স্থানটি খুব নির্জন। বিকেল বা সন্ধ্যায় ওই স্থানে সাধারণত কারও যাওয়ার কথা না।

কালুখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান বলেন, সকাল সাড়ে আটটার দিকে মাঞ্জুয়ারা খাতুনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তাঁকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদ্‌ঘাটনের চেষ্টা চলছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন