default-image

রাজবাড়ী আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে স্বপন কুমার সোম সভাপতি ও আনিছুর রহমান সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। গতকাল রোববার সন্ধ্যায় প্রধান নির্বাচন কর্মকর্তা অশোক কুমার সাহা নির্বাচনের ফল ঘোষণা করেন।

নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ ও বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক আইনজীবী সমিতি যৌথভাবে স্বপন-কবীর-আনিছ পরিষদ ও জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের ব্যানারে শহিদুজ্জামান-আবুল-বারী পরিষদ অংশগ্রহণ করে।

নির্বাচনে স্বপন-কবীর-আনিছ পরিষদে আটজন জয়লাভ করেন। তাঁরা হলেন সভাপতি স্বপন কুমার সোম, সম্পাদক আনিছুর রহমান, সহসম্পাদক খান মোহাম্মদ জহুরুল হক, ক্রীড়া সম্পাদক আহম্মদ আলী মৃধা (বাটু) ও কার্যনির্বাহী সদস্য মাসদুল আলম, রফিকুল ইসলাম, মনোয়ারা খাতুন ও অনুপ কুমার দাস।

শহিদুজ্জামান-আবুল-বারী পরিষদের তিনজন প্রার্থী জয়লাভ করেন। তাঁরা হলেন সহসভাপতি পদে আবুল হোসেন মোল্লা, সহসম্পাদক পদে তসলিম আহম্মেদ ও কার্যনির্বাহী সদস্য পদে রহিমা খাতুন।

বিজ্ঞাপন

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা যায়, রাজবাড়ী আইনজীবী সমিতির ভবনের তৃতীয় তলায় রোববার সকাল ১০টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। শেষ হয় বিকেল ৪টায়। ১৮২ জন ভোটারের মধ্যে ১৮০ জন ভোটার ভোট দেন। ১০৭ ভোট পেয়ে সভাপতি পদে নির্বাচিত হন স্বপন কুমার সোম। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী এ কে এম শহিদুজ্জামান পেয়েছেন ৭১ ভোট। সম্পাদক পদে আনিছুর রহমান পেয়েছেন ১০০ ভোট। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী পেয়েছেন ৭৮ ভোট। সহসভাপতি পদে আবুল হোসেন মোল্লা পেয়েছেন ৯০ ভোট। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী মোস্তফা কবীর পেয়েছেন ৮৫ ভোট। সহসম্পাদক পদে খান মোহাম্মদ জহুরুল হক পেয়েছেন ১০৬ ভোট, তসলিম আহম্মেদ পেয়েছেন ৮৫ ভোট। পরাজিত দুই প্রার্থীর মধ্যে জাহিদ হোসেন মোল্লা পেয়েছেন ৭৪ ভোট ও আবদুস সাত্তার পেয়েছেন ৬৯ ভোট। ক্রীড়া সম্পাদক পদে ১০৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন আহম্মদ আলী মৃধা। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী হেদায়েত উল্লাহ মিয়া পেয়েছেন ৫২ ভোট।

কার্যনির্বাহী সদস্যদের মধ্যে রহিমা খাতুন ১০৬ ভোট, মাসদুল আলম ৯২ ভোট, রফিকুল ইসলাম রফিক ৯১ ভোট, মনোয়ারা খাতুন ৯০ ভোট ও অনুপ কুমার দাস ৮৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন