রাজশাহীতে এক রাতে কোভিডে দুজন, উপসর্গে দুজনের মৃত্যু

বিজ্ঞাপন
default-image

রাজশাহীতে করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে নিউ গভ. ডিগ্রি কলেজের শিক্ষকসহ দুজনের মৃত্যু হয়েছে। আর উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন ব্যাংক কর্মকর্তাসহ আরও দুজন। 

গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টা থেকে ২টার মধ্যে তাঁদের মৃত্যু হয়। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক সাইফুল ফেরদৌস এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এর মধ্যে কোভিডে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিরা হলেন রাজশাহী নগরের শাহমখদুম থানার জিয়া পার্ক এলাকার সেলিম মৃধা (৫০) ও রাজশাহী নিউ গভ. ডিগ্রি কলেজের ভূগোল বিভাগের প্রধান মাহাবুবে খোদা।

আর উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত ব্যক্তিরা হলেন রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের (রাকাব) প্রিন্সিপাল অফিসার ও মহানগরীর মহিষবাথান এলাকার এখলাসুর রহমান (৪০) ও নগরের বোয়ালিয়া থানাধীন এক নারী (৪৮)।

রামেক হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে, গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ওই নারী জ্বর ও শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। হাসপাতালের ২৯ নম্বর করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ৮টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়। মারা যাওয়ার পর পরীক্ষার জন্য তাঁর নমুনা সংগ্রহ করা হয়।


রাত সাড়ে ১১টার দিকে মারা যান শাহমখদুম এলাকার ব্যবসায়ী সেলিম মৃধা। তিনি করোনায় সংক্রমিত ছিলেন। অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় তাঁকে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল।


এরপর রাত সোয়া ১২টার দিকে মারা যান রাকাবের প্রিন্সিপাল অফিসার এখলাসুর রহমান। তিনি উপসর্গ নিয়ে ২৯ নম্বর করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি ছিলেন।
এ ছাড়া রাত ১টা ৪০ মিনিটে ২৯ নম্বর করোনা ওয়ার্ডে মৃত্যু হয় নিউ গভ. ডিগ্রি কলেজের ভূগোল বিভাগের প্রধান মাহাবুবে খোদার। তিনি কোভিডে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন।

মৃত ব্যক্তিদের মধ্যে সেলিম মৃধা এবং ওই নারীকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন রাজশাহীতেই দাফন করবে। আর শিক্ষক মাহাবুবে খোদার দাফন করা হবে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ভোলাহাট উপজেলায়। উপসর্গে মৃত ব্যাংক কর্মকর্তা এখলাসুর রহমানকে তাঁর গ্রামের বাড়ি মাগুরায় দাফন করা হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন