বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মারধরের শিকার হওয়া ওই যাত্রীর নাম  মো. রুবেল (২৪)। তাঁর বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল উপজেলার খেসবা গ্রামে। তিনি শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আনসার সদস্য হিসেবে কর্মরত আছেন।

এ বিষয়ে আনসার সদস্য মো. রুবেল বলেন, মঙ্গলবার ঢাকা থেকে রাজশাহীগামী ধূমকেতু এক্সপ্রেস ট্রেনে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে দুপুর ১২টা ১৫ মিনিটে পৌঁছায়। স্টেশনের প্ল্যাটফর্ম থেকে বের হওয়ার সময় একজন নারী টিসি তাঁকে টিকিট দেখাতে বলেন। এ সময় রুবেল জানান, তাঁর কাছে টিকিট আছে। তবে দুই হাতে চারটি ব্যাগের কারণে দেখাতে সমস্যা হচ্ছে। তিনি একটু পরে টিকিট দেখাতে চান। এ সময় ওই নারী টিসি সেখান থেকে চলে যান।

পরে একজন পুরুষ টিসি এসে তাঁর কাছে টিকিট দেখতে চান। রেলওয়ের অনলাইন রেজিস্ট্রেশনের সময় ভুলবশ তাঁর নামের বানানে ‘ইএল’–এর জায়গায় ‘এএল’ লেখা হয়েছে। এই ভুলের জন্য টিসি তাঁকে ধাক্কা দেন। এরপর তাঁকে স্টেশনের একটি কক্ষে ধরে নিয়ে গিয়ে মারধর শুরু করেন। এ সময় ওই নারী টিসি গিয়ে বলেন, ‘আপনাকে বেশি মারা হয়নি তো।’

মারধর করার সময় আনসার সদস্য রুবেল তাঁর মুঠোফোনে গোপন ক্যামেরায় তা ধারণ করেন। মুঠোফোনে ধারণ করা সেই ভিডিও গত বুধবার সামাজিক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

মুঠোফোন নম্বর না পাওয়ায় আনসার সদস্য মো. রুবেলকে মারধর করার অভিযোগের বিষয়ে টিসি মেহেদী হাসানের সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি।
এ ব্যাপারে রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের মহাপরিচালক (জিএম) অসীম কুমার তালুকদার বলেন, রেলওয়ের কোনো যাত্রীকে কেউ মারতে পারে না। রাজশাহী রেলস্টেশনের ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।  ট্রেনযাত্রীকে মারধর করার অভিযোগে ওই টিসিকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।

অসীম কুমার তালুকদার আরও বলেন, রেলস্টেশনের কোনো কক্ষে কোনো যাত্রীকে না ঢোকানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কোনো যাত্রীকে কিছু বলার থাকলে সবার সামনেই বলতে হবে। স্টেশনে কোনো টর্চার সেল বানাতে দেওয়া হবে না।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন