default-image

রাজশাহী নগরের ভদ্রা এলাকায় অগ্নিকাণ্ডে দুটি দোকান পুড়ে গেছে। এতে শিশুসহ তিনজন আহত হয়েছেন। আজ বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজশাহী নগরের ভদ্রা এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

আহত ব্যক্তিরা হলেন নগরের বাররাস্তার মোড় এলাকার আইনুল হকের ছেলে মো. আলি হোসেন (৩০), তাঁর শ্যালক মো. মিরাজ (১৩) ও মিজানের মোড় এলাকার সেলিম হোসেন (২৪)। তাঁদের মধ্যে আলি হোসেন পুড়ে যাওয়া একটি দোকানের মালিক। আলি হোসেন ও মিরাজ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৬ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন। সেলিম হোসেন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

আলি হোসেনের স্ত্রী শাহিনুর আক্তার বলেন, অগ্নিকাণ্ডে তাঁর স্বামীর দুই হাত, দুই পা ও মুখের কিছু অংশ পুড়ে গেছে। এ ছাড়া আগুনে তাঁর চাচাতো ভাই মিরাজের পায়ের কিছু অংশ ও দুই হাতের কিছু অংশ পুড়ে গেছে। তাঁরা হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, সকালে দোকান খোলার পর বিউটি আইরন স্টোরের মালিক আলী হোসেন, তাঁর চাচাতো শ্যালক মিরাজ ও কর্মচারী সেলিম ঝালাইয়ের কাজ করছিলেন। এ সময় ঝালাইযন্ত্র থেকে আগুন পরিত্যক্ত বডি স্প্রের ক্যানে পড়ে। এতে ওই ক্যানের বিস্ফোরণে প্রথমে ওই দোকানে আগুন লাগে। পরে পাশের আরেকটি দোকানে ছড়িয়ে পড়ে। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আগুন লাগার পর স্থানীয় ব্যক্তিরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করেন। কিন্তু তাঁরা আগুন নেভাতে ব্যর্থ হয়ে দুপুর ১২টার দিকে ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে ফোন দেন। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে এসে পাঁচ মিনিটের মধ্যে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ফায়ার সার্ভিসের স্টেশনের স্টেশন কর্মকর্তা মাসুদ রানা বলেন, দোকানের মালিক তাঁদের জানিয়েছেন ঝালাইয়ের যন্ত্র থেকে বের হওয়া আগুন থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে। এ অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত দুই দোকানমালিকের পাঁচ লাখের বেশি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন