default-image

রাজশাহীতে পর্নোগ্রাফি মামলায় বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের এক প্রকৌশলীকে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজশাহীর চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শাহ মোহাম্মাদ জাকির হাসান এই রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত পার্থ প্রতীম ঘোষ (৩০) রাজশাহী নগরের মতিহার থানার অক্ট্রয় মোড় এলাকার প্রবীর কুমারের ছেলে। তিনি একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত। রায় ঘোষণার সময় পার্থ প্রতীম আদালতে উপস্থিত ছিলেন। আদালত তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণ সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালে ঢাকায় একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত এক ছাত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তোলেন পার্থ প্রতীম। একপর্যায়ে ছাত্রীর নগ্ন ছবি ও ভিডিও ধারণ করেন। সেই ছবি দেখিয়ে ছাত্রীর বাবার কাছ থেকে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। টাকা দিতে অস্বীকার করায় ইন্টারনেটে ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেন পার্থ। এরপর ছাত্রীর বাবা ওই বছরের ২২ নভেম্বর নগরের বোয়ালিয়া থানায় পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে বৃহস্পতিবার বিচারক রায় দেন। দুটি ধারার মধ্যে একটিতে ৫ বছর এবং অপরটিতে ২ বছর মিলে মোট ৭ বছরের সাজা দেওয়া হয়।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে আইনজীবী ছিলেন মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান ও আসামি পক্ষে ছিলেন মোহন কুমার সাহা।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0