default-image

‘মাস্ক পরার অভ্যেস, কোভিডমুক্ত বাংলাদেশ’ স্লোগানে বিনা মূল্যে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করেছে রাজশাহীর পুলিশ। মহামারি করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে মাসব্যাপী বিশেষ উদ্বুদ্ধ করা কর্মসূচির আওতায় আজ রোববার থেকে আবার মাঠে নেমেছে পুলিশ।

এর আগে বৃহস্পতিবার এক অনুষ্ঠানে করোনার দ্বিতীয় ধাপ মোকাবিলায় দেশব্যাপী পুলিশকে মাঠে থেকে মানুষকে সচেতনতা বাড়ানোসহ স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারে নির্দেশনা দেন পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ।

নগরের বোয়ালিয়া মডেল থানার আয়োজনে আজ ১০টায় সাহেববাজার জিরো পয়েন্টে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক বিনা মূল্যে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। সেখানে তিনি বিভিন্ন পেশার মানুষের সঙ্গে কথা বলেন এবং তাঁদের কাছে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার তুলে দেন।

সাহেববাজার বড় মসজিদের সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে আবু কালাম সিদ্দিক বলেন, বাংলাদেশে কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে সংক্রমণ ও মৃত্যু দুটিই বেড়েছে। তাই কোভিড মোকাবিলায় মাস্ক ও স্বাস্থ্যবিধির কোনো বিকল্প নেই। রাজশাহীর বিভাগীয় শহরে আজ থেকে মাঠে পুলিশের সদস্যরা নেমেছেন। তাঁরা জনগণকে বুঝিয়ে–শুনিয়ে মাস্ক ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে সচেতন করবেন। তিনি আরও বলেন, ‘রাজশাহীর সব মানুষ আজ থেকে মাস্ক পরবেন। আপনি মাস্ক পরলে আপনিসহ আশপাশের সবাই নিরাপদ থাকবে। রাজশাহী শহরের দোকান-মালিক সমিতি, ব্যবসায়িক সমিতি, বাস-মালিক সমিতিকেও বলব— “নো মাস্ক, নো সার্ভিস” কঠোরভাবে আপনারা মেনে চলবেন। সবাই সহযোগিতা করলে বাংলাদেশ কোভিডমুক্ত হবে।’

বিজ্ঞাপন

কর্মসূচিতে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন) মো. সুজায়েত ইসলাম, উপপুলিশ কমিশনার (বোয়ালিয়া) মো. সাজিদ হোসেনসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতা-র্কমীরা উপস্থিত ছিলেন।

রাজশাহী ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদের সভাপতি ফরহাদ মাদুদ হাসান বলেন, মাস্ক পরা ও স্বাস্থ্যবিধি মানার এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে মানুষের কল্যাণের জন্য। সামনে রমজান মাসে আরও মানুষের ভিড় বাড়বে। সে জন্য এখন থেকেই সবাইকে মাস্ক পরতে হবে।

রাজশাহী জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ও নগরের ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মাহাতাব হোসেন চৌধুরী বলেন, জনগণকে এই বিপদ থেকে রক্ষা পেতে হলে অবশ্যই মাস্ক পরতে হবে। তাঁরা গণপরিবহনেও মাস্ক পরা নিশ্চিত করবেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন