বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

৩১ জানুয়ারি এ হত্যার ঘটনা ঘটে চারঘাটে। নিহত বাবার নাম সাদেক আলি। তাঁর বয়স হয়েছিল ৬২ বছর। তাঁর বাড়ি চারঘাট উপজেলার তাতারপুর কারিগরপাড়া গ্রামে।

বুধবার বিকেলে আসামি মুরাদ রাজশাহীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট উজ্জ্বল মাহমুদের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার দিন সকাল সাড়ে নয়টার দিকে বাজারে যাওয়া নিয়ে সাদেক আলির সঙ্গে তাঁর ছেলে মুরাদের কথা-কাটাকাটি হয়। সাদেক আলি এ নিয়ে গ্রামের মাতব্বরের কাছে বিচার দিতে চাইলে উত্তেজিত মুরাদ তাঁর বাবাকে মেরে ফেলার হুমকি দেন। সাদেক আলি হুমকি গায়ে না মেখে গ্রামের মাতব্বরের কাছে যাওয়ার জন্য এগোলে মুরাদ লোহার রড দিয়ে সাদেক আলির পায়ে আঘাত করলে সাদেক আলি মাটিতে পড়ে যান। মুরাদ সাদেক আলির মাথায় ও ঘাড়ে আঘাত করে গুরুতর জখম করেন। এতে সাদেক আলি ঘটনাস্থলেই মারা যান। এ ব্যাপারে চারঘাট থানায় একটি হত্যা মামলা করা হয়েছে।

সিআইডি রাজশাহী জেলা পরিদর্শক আনিসুর রহমান বলেন, গ্রেপ্তার এড়াতে আসামি মুরাদ বাড়ি থেকে পালিয়ে ঢাকার দোহারের মেঘুলাবাজার যান। সেখান থেকে সিআইডি ঢাকার সহায়তায় গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। বুধবার বিকেলে আসামি মুরাদ রাজশাহীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট উজ্জ্বল মাহমুদের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। এরপর তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন