বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ ঘটনায় গ্রেপ্তার দুজন হলেন নগরের রানীনগর এলাকার মো. হাসিবুল ইসলামের ছেলে শিমুল হোসেন (২২) ও মো. তারেকের ছেলে সোহানুল ইসলাম (২১)। এ ঘটনায় বাকি চার আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রানীনগর এলাকায় সিটি হাসপাতালের সামনে শনিবার সন্ধ্যার দিকে কয়েকজনের সঙ্গে তর্কাতর্কি হয় পিয়ারুলের। পরে পিয়ারুল সেখান থেকে বাড়িতে চলে যান। রাত আটটার দিকে কয়েকজন পিয়ারুলের বাড়িতে যান। তাঁরা পিয়ারুলকে ঘর থেকে ডেকে বাইরে বের করে নিয়ে আসেন। বাড়ির মধ্যেই লোহার রড, জিআই পাইপ দিয়ে আঘাত করা হয় তাঁকে। পরে পিয়ারুলের বুকে ছুরি মেরে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান তাঁরা। রাত সাড়ে আটটার দিকে ঘটনাস্থলেই পিয়ারুলের মৃত্যু হয়।

মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন