default-image

রাজশাহীতে সুরক্ষিত অবস্থায় ১ লাখ ৮০ হাজার ডোজ করোনার টিকা এসে পৌঁছেছে। একজনকে দুই ডোজ করে টিকা দেওয়া হবে। সেই হিসাবে ৯০ হাজার মানুষকে এই টিকা দেওয়া যাবে।

ইতিমধ্যে ২০ হাজার মানুষের তালিকা করা হয়েছে। আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে টিকা দেওয়া শুরু হবে। এর আগে টিকা প্রদানের বিষয়ে স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।
আজ শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার পর বেক্সিমকো ফার্মার কাভার্ড ফ্রিজার ভ্যানে রাজশাহী জেলা ইপিআই স্টোরে ১৫টি কার্টুনে টিকাগুলো এসে পৌঁছায়। সিভিল সার্জন ডা. কাইয়ুম তালুকদার বলেন, প্রথম পর্যায়ে ১৫টি কার্টুনে ১৮ হাজার ভায়াল এসেছে। প্রতি ভায়ালে ১০টি ডোজ রয়েছে। সেই হিসাবে মোট ১ লাখ ৮০ হাজার ডোজ ভ্যাকসিন পাওয়া গেছে। একজনকে দুই ডোজ দিতে হবে। ফলে ৯০ হাজার মানুষকে এই টিকা দেওয়া যাবে। তিনি আরও বলেন, টিকাগুলো নির্ধারিত তাপমাত্রায় সুরক্ষিতভাবে এসেছে এবং ইপিআই স্টোরে সেভাবেই সংরক্ষণ করা হয়েছে। বাইরে থেকেও অনলাইনে তাপমাত্রা যাচাই করা যাবে।

বিজ্ঞাপন

সরকারি সিদ্ধান্ত অনুসারে, আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি জেলা পর্যায়ে ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম শুরু হবে। সিভিল সার্জন বলেন, আগামী ১ ও ২ ফেব্রুয়ারি স্বাস্থ্যকর্মীদের টিকা দেওয়ার প্রশিক্ষণ হবে। এরপর চারটি পয়েন্টে একাধিক বুথে প্রশিক্ষিত স্বাস্থ্যকর্মীদের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের টিকা দেওয়া হবে। পয়েন্টগুলো উল্লেখ করে তিনি জানান, প্রাথমিক পর্যায়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, সিটি করপোরেশনের নির্ধারিত কেন্দ্র, সিভিল সার্জনের নির্ধারিত কেন্দ্র এবং রাজশাহী সেনাবাহিনীর নির্ধারিত কেন্দ্রে টিকাদান কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

ইতিমধ্যে রাজশাহী সিটি করপোরেশন, মেডিকলে কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ১৮ থেকে ২০ হাজার কর্মকর্তা ও কর্মচারীর তালিকা তাঁদের হাতে এসেছে। সাংবাদিকদেরও একটি তালিকা তাঁদের হাতে আসার কথা রয়েছে। এ ছাড়া https://surokkha.gov.bd অ্যাপের মাধ্যমে ৫৫ বছরের বেশি বয়সী যেকোনো ব্যক্তি নাম তালিকাভুক্ত করতে পারবেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন