default-image

পূজা আসে পূজা যায়—গোদাগাড়ীর প্রসাদপাড়ার হিন্দুপল্লির রতিকান্ত দাসেদের গায়ে নতুন জামা আর ওঠে না। এবার প্রথম আলোর রাজশাহী বন্ধুসভার বন্ধুদের টাকায় কেনা নতুন জমা পেলেন তাঁরা। গতকাল রোববার সন্ধ্যায় রাজশাহী বন্ধুসভা ওই পল্লির ২০ পরিবারকে পূজার নতুন পোশাক দিয়েছে। নারীদের জন্য শাড়ি, আর পুরুষদের জন্য জামা দেওয়া হয়েছে।
রাজশাহী বন্ধুসভার সভাপতি মো. বেলাল হোসেন জানান, প্রতি ঈদে বন্ধুসভার পক্ষ থেকে হতদরিদ্র পরিবারের সদস্যদের নতুন জামাকাপড় দেওয়া হয়। একইভাবে তাঁরা হতদরিদ্র সনাতন ধর্মাবলম্বীদের পোশাক দেন। এবারও তারই ধারাবাহিকতায় ২০ পরিবারের সদস্যদের নতুন পোশাক দেওয়া হয়েছে।
প্রসাদপাড়া গ্রামের রতিকান্ত দাসের বয়স প্রায় ৯০ বছর। আগে মিষ্টি ফেরি করে বিক্রি করতেন তিনি। এখন বয়সের ভারে পরিবারের ওপর একেবারেই নির্ভরশীল। এই রতিকান্ত দাসকে গতকাল সন্ধ্যায় একটি জামা দেওয়া হয়। এই বয়সে নতুন জামা পেয়ে তিনি জানান, অনেক দিন পর এই বুড়া বয়সে নতুন জামা পেলাম। এর আগে কবে নতুন জামা পেয়েছিলাম, মনে নেই। গৌরাঙ্গ দাস (৮২) নতুন জামা পেয়ে বললেন, ‘আমি অনেক খুশি হয়েছি। তোমাদের ধন্যবাদ।’

বিজ্ঞাপন

গতকালের পোশাক বিতরণ অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন আলোকছত্র উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোপাল চন্দ্র দাস, পাকড়ি বংপুর মমিনপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সজিত কুমার দাস। এই দুই শিক্ষক প্রথম আলোর বন্ধুসভার এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, এটি একটি মহতী কাজ। এই কাজ প্রথম আলো আরও বেশি বেশি করে করবে—এটা তাঁদের প্রত্যাশা।

মন্তব্য পড়ুন 0